সাকিবের সঙ্গে তামিমের লড়াই

তিন সংস্করণ মিলে ১১ হাজার রান পেরিয়ে গেছেন তামিম ইকবাল। পেছন পেছন ছুটছেন আরও দুজন। সাকিব আল হাসান ১০ হাজার পেরিয়েছেন গত ম্যাচেই। বেশি দূরে নেই মুশফিকুর রহিমও। তবে সাকিব তিন নম্বরে ব্যাটিং শুরু করায় তামিমের লড়াইটা এখন তাঁর সঙ্গেই বেশি।  তামিম কিন্তু ইতিবাচকভাবেই নিচ্ছেন লড়াইটা, ‘ভালো হবে যদি প্রতিযোগিতাটা জমে। দলের মধ্যে স্বাস্থ্যকর প্রতিযোগিতা থাকলে সেটা সব সময়ই ভালো। আমি যদি কাউকে হারাতে চাই বা ও যদি আমাকে হারাতে চায়, এটা সব সময়ই ভালো।’ তিন নম্বরে নামলে আগের তুলনায় বেশি বল খেলার সুযোগ পাবেন সাকিব। বাড়বে বড় ইনিংস খেলার সুযোগ। এই চাপ যেন আরও অনুপ্রাণিত করছে তামিমকে, ‘আমাকে এখন মনে রাখতে হবে, এগিয়ে থাকতে হলে আমাকে পারফর্ম করতে হবে।’  ত্রিদেশীয় সিরিজের দুই ম্যাচেই সাকিবের সঙ্গে মোটামুটি বড় রানের জুটি হয়েছে ওপেনার তামিমের। তা অন্য প্রান্ত থেকে তিনি কেমন দেখছেন তিন নম্বরের সাকিবকে? ‘এটা ওর জন্য একটা নতুন চ্যালেঞ্জ। ও ভালোই খেলছে। সে খুব স্মার্ট ক্রিকেটার। এই জায়গায় ও ঠিক আছে কি না, এটা বলার সময় এখনো আসেনি। তবে আমি যেটা বলতে পারি, সে ওই সামর্থ্য রাখে। সাকিব জানে কী করতে হবে’—বলেছেন তামিম।  টেস্টে চার হাজারের কাছাকাছি পৌঁছে গেছে তামিমের রান (৩৮৮৬)। ওয়ানডেতে (৫৯৩৪) তো ছয় হাজারি ক্লাবে ঢুকে যেতে পারেন আজই। তিন সংস্করণ মিলিয়ে ১১ হাজার রানের মতো ওয়ানডের ছয় হাজার রানেরও সমান মর্যাদা তামিমের কাছে। তবে দিব্যদৃষ্টিতে দেখতে পাচ্ছেন, আজ থেকে আট-দশ বছর পর তাঁদের এসব কীর্তি অনেকটাই মলিন হয়ে যাবে, ‘তখন যারা নতুন আসবে, তাদের লক্ষ্যটাই হবে অন্য রকম।’

তিন সংস্করণ মিলে ১১ হাজার রান পেরিয়ে গেছেন তামিম ইকবাল। পেছন পেছন ছুটছেন আরও দুজন। সাকিব আল হাসান ১০ হাজার পেরিয়েছেন গত ম্যাচেই। বেশি দূরে নেই মুশফিকুর রহিমও। তবে সাকিব তিন নম্বরে ব্যাটিং শুরু করায় তামিমের লড়াইটা এখন তাঁর সঙ্গেই বেশি।

তামিম কিন্তু ইতিবাচকভাবেই নিচ্ছেন লড়াইটা, ‘ভালো হবে যদি প্রতিযোগিতাটা জমে। দলের মধ্যে স্বাস্থ্যকর প্রতিযোগিতা থাকলে সেটা সব সময়ই ভালো। আমি যদি কাউকে হারাতে চাই বা ও যদি আমাকে হারাতে চায়, এটা সব সময়ই ভালো।’ তিন নম্বরে নামলে আগের তুলনায় বেশি বল খেলার সুযোগ পাবেন সাকিব। বাড়বে বড় ইনিংস খেলার সুযোগ। এই চাপ যেন আরও অনুপ্রাণিত করছে তামিমকে, ‘আমাকে এখন মনে রাখতে হবে, এগিয়ে থাকতে হলে আমাকে পারফর্ম করতে হবে।’

ত্রিদেশীয় সিরিজের দুই ম্যাচেই সাকিবের সঙ্গে মোটামুটি বড় রানের জুটি হয়েছে ওপেনার তামিমের। তা অন্য প্রান্ত থেকে তিনি কেমন দেখছেন তিন নম্বরের সাকিবকে? ‘এটা ওর জন্য একটা নতুন চ্যালেঞ্জ। ও ভালোই খেলছে। সে খুব স্মার্ট ক্রিকেটার। এই জায়গায় ও ঠিক আছে কি না, এটা বলার সময় এখনো আসেনি। তবে আমি যেটা বলতে পারি, সে ওই সামর্থ্য রাখে। সাকিব জানে কী করতে হবে’—বলেছেন তামিম।

টেস্টে চার হাজারের কাছাকাছি পৌঁছে গেছে তামিমের রান (৩৮৮৬)। ওয়ানডেতে (৫৯৩৪) তো ছয় হাজারি ক্লাবে ঢুকে যেতে পারেন আজই। তিন সংস্করণ মিলিয়ে ১১ হাজার রানের মতো ওয়ানডের ছয় হাজার রানেরও সমান মর্যাদা তামিমের কাছে। তবে দিব্যদৃষ্টিতে দেখতে পাচ্ছেন, আজ থেকে আট-দশ বছর পর তাঁদের এসব কীর্তি অনেকটাই মলিন হয়ে যাবে, ‘তখন যারা নতুন আসবে, তাদের লক্ষ্যটাই হবে অন্য রকম।’

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*